• সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৯ ১৪২৭

  • || ২৯ শা'বান ১৪৪২

সর্বশেষ:
আপদকালীন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণে ৪৮৩ উপজেলায় ৩ লাখ টাকা করে অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে সরকার জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় চরাঞ্চলের স্কুলের সাথে ফ্রান্সের মতবিনিময় চলতি সপ্তাহেই ২০০ শয্যার আইসিইউ হাসপাতাল প্রস্তুত হবে লকডাউনে রফতানিমুখী শিল্প কারখানা খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে রংপুরে মাঠে নেমেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

কুড়িগ্রমে দিনে গরম, রাতে পৌষের ঠাণ্ডা 

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল ২০২০  

চৈত্র মাসের দুই ভাগ চলে গেছে। দিনে প্রচণ্ড গরম পড়লেও রাতে পৌষ মাসের মত ঠাণ্ডা পড়ে। পাড়ায় পাড়ায় শীতের কম্বল, কাঁথা উঠিয়ে রাখলেও আবার বের করতে বাধ্য হয়েছেন। 
দিনে গরম ও রাতের ঠাণ্ডার কারণে কুড়িগ্রামের রাজিবপুরে প্রতিটি ঘরে রয়েছে জ্বর, ঠাণ্ডা ও গলা ব্যথার রোগী। 

অনেকের জ্বর, সর্দির সঙ্গে রয়েছে খুসখুসি কাশি। বিশ্ব জুড়ে করোনাভাইরাস আতঙ্ক। ফলে অনেকেই সার্টিফিকেট ধারী ডাক্তারের কাছে না গিয়ে পল্লী চিকিৎসকদের দিয়ে সেবা নিচ্ছেন। ভয়, যদি করোনাভাইরাসের জীবাণু থাকে। 

হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার ভয়ে রোগীরা রেজিস্টার্ড ডাক্তারের নিকটে যাচ্ছে না বললেই চলে। তাছাড়া ডাক্তারের নিকট যাওয়াও এত সহজ নয়। জ্বরের রোগী দেখেই ডাক্তার রোগীকে ছুঁতেই চায়না বলেও অনেক রোগীর অভিযোগ। 

তবে রোগীদের অভিযোগের কথা অস্বীকার করে একজন ডাক্তার বললেন, সাধারণ সর্দি-জ্বরের রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছি। তবে অধিকাংশ জটিল রোগীদের  মোবাইলের হেল্প লাইনের মাধ্যমে চিকিৎসা দিচ্ছি। 

এ সময়ে এত সর্দি-কাশির রোগী কেন? 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জরুরি বিভাগের ডাক্তার কুদ্দুস জানান,  সিজন পরিবর্তনের কারণে ফ্লু হয়। আর ফ্লু থেকে সর্দি-কাশি ও গলা ব্যথা হতে পারে। তবে সর্দি -কাশি হলেই করোনা নাও হতে পারে। 

এ ব্যাপারে চর রাজিবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার দেলোয়ার হোসেন জানান, এ সময় সর্দি-কাশি একটু বেশি হয়ে থাকে। চারিদিকে ধুলাবালি ছড়িয়ে-ছিটিয়ে এর ব্যাপকতা বুদ্ধি পাচ্ছে। এ জন্য সবাইকে সচেতন ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে হবে। 

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –