• সোমবার   ০৮ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২৪ ১৪২৭

  • || ২৪ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
সংসদে নারী প্রতিনিধিত্বে ভারত-পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ এখন রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী আজ আন্তর্জাতিক নারী দিবস করোনার এক বছর, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সফল চেষ্টায় এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে সর্বনাশা এই বৈশ্বিক মহামারির অভিশপ্ত ছোঁয়া নারী দিবসে শ্রেষ্ঠ ৫ জয়িতা পেলেন সম্মাননা

ভূরুঙ্গামারীতে প্রসবের পর সন্তানকে ফেলে পালালেন মা

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী সদর হাসপাতালে সন্তান প্রসব করে বাঁশ ঝাড়ে সন্তান রেখে পালিয়ে গেছেন মা। পরে স্থানীয় লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করলে ৮ ঘণ্টার মাথায় শিশুটির মৃত্যু হয়। ভুরুঙ্গামারী থানার ওসি এবং ভুরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল শনিবার(২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কন্যা শিশুটির স্বাভাবিক জন্ম হলে নাম রাখা হয় সুবর্ণা। এরপর সকাল ১০ টার দিকে হাসপাতাল থেকে কোন ছাড় পত্র না নিয়েই সন্তানসহ পালিয়ে যান মা।পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে হাসপাতালের পিছনের একটি বাঁশ ঝাড়ে কান্নার আওয়াজ শুনে লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করে আবারও হাসপাতালে ভর্তি করায়।

হাসপাতালে ভর্তি রেজিস্টার সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে  খাদিজা খাতুন (৩৫) নামের এক গর্ভবতী নারী সন্তান প্রসব জনিত সমস্যার কারণে হাসপাতালে ভর্তি হন। খাদিজা খাতুন উপজেলা সদর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের তহিদুল ইসলামের স্ত্রী হিসেবে উল্লেখ থাকলেও এই ঠিকানায় তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে জানায় পুলিশ

এরপর রাত সাড়ে ৮টার দিকে শিশুটি হাসপাতালের গাইনি বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় বলে জানান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এএসএম সায়েম।

ডা. এএসএম সায়েম আরও জানান, শিশুটির জন্মের সময় নারীটির সাথে তার মা পরিচয়ে আর একজন নারী ছিলেন। তাদের কিছু ওষুধসহ পাশের কক্ষে বিশ্রাম করতে পাঠানো হয়। সকাল ১০টার দিকে তাদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিলো না। এরপর যখন শিশুটিকে আবার নিয়ে আসা হয় তখন তার শ্বাসপ্রশ্বাস স্বাভাবিক ছিলো ও কান্না করছিলো। আমরা শিশুটিকে বাঁচানোর পুরো চেষ্টা করেছি। তবে বাঁচানো যায়নি।

এ বিষয়ে ভুরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ বলেন, 'হাসপাতাল থেকে পলাতক নারী যে ঠিকানায় ভর্তি হয়েছেন সে ঠিকানায় তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।হাসপাতালে সিসিটিভি না থাকায় তাদের শনাক্ত করা যাচ্ছেনা। তবে আমরা তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চালাচ্ছি'।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –