• রোববার   ২০ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৬ ১৪২৮

  • || ১০ জ্বিলকদ ১৪৪২

সর্বশেষ:
একসঙ্গে ঘর পেল ৫৩ হাজার অসহায় পরিবার, বিশ্বে নজিরবিহীন দেশের প্রতিটি জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় করা হবে- শিক্ষামন্ত্রী আজ থেকে হাইকোর্টের ৫৩ বেঞ্চে ভার্চুয়ালি বিচারকার্য ‘নারী ও শিশু ধর্ষণ মামলার বিচার দ্রুত নিস্পত্তি করতে হবে’ প্রথম দিন সিনোফার্মের টিকা নিলেন ৪৩২০ জন

রাজারহাটে গোল্ডেন ক্রাউন তরমুজ চাষে সাফল্য 

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৫ মে ২০২১  

কুড়িগ্রামের রাজারহাটে নতুন জাতের গোল্ডেন ক্রাউন তরমুজ চাষ করে সাফল্য দেখছে তিন তরুণ। শিক্ষিত বেকার এ তরুণরা এ জাতের তরমুজ চাষ করে উপজেলার সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। অল্প জমিতে অল্প পুঁজি দিয়ে অনেক লাভের মুখ দেখছেন তারা। মাত্র দেড় বিঘা জমিতে ৮০ হাজার টাকা খরচ করে ইতোমধ্যে প্রায় দেড় লক্ষ টাকা আয় করার সুযোগ হয়েছে তাদের। এসব তরুণদের তরমুজ চাষ এখানকার আরো অনেককে আগ্রহী করে তুলেছে। অন্যান্য চাষীরা তাদের অনুসরণ করে নতুন তরমুজ লাগানোর কথা ভাবছেন। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানায়, ক্রাউন তরমুজ চাষ নতুন করে কুড়িগ্রামের কৃষিতে ভালো অর্জন হবে।

সরেজমিনে জানা যায়, জেলার রাজারহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন হরিশ্বর তালুক গ্রামে তিন শিক্ষিত বেকার তরুণ এবার গোল্ডেন ক্রাউন তরমুজ চাষ করেছেন। অনার্স পড়ুয়া তিন বন্ধু করোনাকালিন সময়ে তাদের পড়াশুনা বন্ধ থাকায় পরিবারকে সহায়তা করতে কৃষি বিভাগের পরামর্শে জেলায় প্রথমবারের মত এ জাতের তরমুজ চাষ করেছেন। ঢাকায় একজনের মাধ্যমে চুয়াডাঙ্গা থেকে ৭০ গ্রাম বীজ সংগ্রহ করেন তারা। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি জমিতে বীজ ছিটিয়ে ৭ দিনের চারা রোপন করেন।

পরে দেড় বিঘা জমিতে সব মিলিয়ে খরচ হয় প্রায় ৮০ হাজার টাকা। দুই মাস যেতেই  টকটকে হলুদ রঙের বাহারি তরমুজ উত্তোলন উপযোগী হয়ে পড়ে তাদের জমিতে। শুরু হয় উত্তোলণের কাজ। খরচ মিটিয়ে দেড় লক্ষ টাকার ওপরে আয় করার সম্ভাবনা দেখা দেয়। এজন্য খুশি রাজারহাটের ওই তিন তরুণ।

তরুণ নুর আলম জানান,অভাবের কারণে ঢাকায় কাজ করতে গিয়েছিলাম। পরে অনেক ভেবে চিন্তে আবার এলাকায় ফিরে আসি।ভাবলাম এলাকায় কিছু করা যায় কিনা। কৃষি নিয়ে অনেক আগ্রহ ছিল। পরে কৃষি বিভাগের পরামর্শে উচ্চ ফলনশীল তরমুজ চাষে মনোযোগ দেই।

তিনি আরো বলেন, আমরা তিন বন্ধু দেড় বছর ধরে বাসায় বসেছিলাম। পরিবারে স্বচ্ছলতার জন্য তাইওয়ান জাতের গোল্ডেন ক্রাউন তরমুজ চাষের কথা ভাবি। এ চাষ করে সাফল্য পেয়েছি। আমরা চাই আমাদের দেখে অন্যান্য তরুণ ও যুবকরা সফলতা আনতে পারে।

তরমুজ চাষ দেখতে এক তরুণ মাহাবুবুল হাসান জিম জানান, এই প্রথমবার আমাদের এ উপজেলায় ক্রাউন জাতের তরমুজ চাষ শুরু হয়েছে। আমিসহ আমরা কয়েকজন এটি দেখতে এসেছি। পদ্ধতি জেনে নিজেরাও চাষ করতে আগ্রহ প্রকাশ করছি। শুনেছি ওনারা যে বীজ এনেছেন তা তাইওয়ান থেকে। এই তরমুজে দ্বিগুণ পুষ্টিমান ও মিষ্টতা রয়েছে। আমরা বাণিজ্যিকভাবে এর প্রসার করতে পারলে আমরা অনেক উপকৃত হব। সেই সাথে কর্মসংস্থানেরও সুযোগ সৃষ্টি হবে বলে মনে করি।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মঞ্জুরুল হক বলেন, জেলার রাজারহাট উপজেলায় এই প্রথম উন্নত গোল্ডেন ক্রাউন জাতের তরমুজ চাষ হয়েছে। এটি প্রথম বাণিজ্যিক ফসল এবং এটি লাভজনকও বটে। আমরা আশা করছি এভাবেই কুড়িগ্রামের কৃষি বাণিজ্যিক কৃষিতে রুপান্তর হবে। 

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –