• সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৯ ১৪২৭

  • || ২৯ শা'বান ১৪৪২

সর্বশেষ:
আপদকালীন স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণে ৪৮৩ উপজেলায় ৩ লাখ টাকা করে অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে সরকার জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় চরাঞ্চলের স্কুলের সাথে ফ্রান্সের মতবিনিময় চলতি সপ্তাহেই ২০০ শয্যার আইসিইউ হাসপাতাল প্রস্তুত হবে লকডাউনে রফতানিমুখী শিল্প কারখানা খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে রংপুরে মাঠে নেমেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত

সন্তান প্রসব করা মানসিক ভারসাম্যহীন নারীর পাশে কুড়িগ্রাম পুলিশ   

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৮ মার্চ ২০২১  

কুড়িগ্রাম পৌরসভার জয়বাংলা মোড় এলাকায় একটি খোলা স্থানে এক মানসিক ভারসাম্যহীন নারী পুত্র সন্তান প্রসব করেছেন। গতকাল শনিবার (২৭ মার্চ) ভোররাতে ওই নারীর সন্তান প্রসবের ঘটনাটি স্থানীয়দের চোখে পড়লে তারা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় মা ও নবজাতককে উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

স্থানীয়রা জানায়, মানসিক ভারসাম্যহীন এই নারী কয়েক বছর ধরে শহরের বিভিন্ন বাজার ও রাস্তায় অবস্থান করে আসছিলেন।
পুলিশ জানায়, রাতে জয়বাংলা মোড় এলাকায় পরিত্যক্ত স্থানে মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী সন্তান প্রসব করেছেন, এমন খবরে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে মা ও তার নবজাতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই নারী তার নাম ঠিকানা কিছুই বলতে পারছে না।

কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মো. মোকতার হোসেন জানান, নবজাতকের ওজন ১ কেজির একটু বেশি, আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে । তবে তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, মানসিক ভারসাম্যহীন এক নারী একটি ছেলে সন্তান প্রসব করেছেন। খবর পেয়ে দ্রুত পুলিশ পাঠিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে পুলিশ রয়েছে যাতে কেউ বাচ্চাটি নিয়ে যেতে না পারে। এরই মধ্যে অনেকে বাচ্চাটি নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। নারী ও তার সন্তানের চিকিৎসার জন্য সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

শনিবার বিকেলে কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে গিয়ে মা ও শিশুর সার্বিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দা জান্নাত আরা। তখন তিনি বলেন, মা ও শিশুর চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। যেহেতু শিশুর মা মানসিক ভারসাম্যহীন তাই শিশুর দেখাশোনার দ্বায়িত্ব নেওয়ার জন্য আদালতের সাহায্য নেওয়া হবে। এছাড়াও এই নারীর পরিচয় বের করার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –