• বুধবার   ২৫ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯

  • || ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ১২৩তম জন্মজয়ন্তী আজ সারাদেশে তাপমাত্রা কমতে পারে দেশীয় পণ্য নিশ্চিত করতে শুল্ক বসল দুই শতাধিক পণ্যে ভোটার তালিকা হালনাগাদে শিক্ষকদের সহায়তা করার নির্দেশ নজরুলের সৃজনশীল কর্ম বিশ্ব সাহিত্যেও বিরল

আয়ের বৈষম্য না বাড়ুক- এটাই আমরা চাই: পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৪ মে ২০২২  

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেছেনে, দেশে আয়-উন্নতি বাড়ছে। আয়ের বৈষম্য না বাড়ুক- এটাই আমরা চাই। জনশুমারি জাতির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। অপপ্রচার হতে পারে- সেটি মোকাবিলার দায়িত্ব নাগরিক হিসেবে সবার।

তিনি বলেন, দায়িত্বপ্রাপ্তরা তো করবেনই, তবে যারা সাংবাদিক আছেন, শিক্ষক আছেন, ইমাম আছেন- তাদেরও দায়িত্ব পালন করতে হবে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে মুন্সীগঞ্জ সার্কিট হাউজে প্রথম ডিজিটাল জনশুমারি ও গৃহগণনা বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কর্মশালায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন, পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র হাজী মো. ফয়সাল বিপ্লব প্রমুখ।

এছাড়া কর্মশালায় সরকারি বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জনশুমারি ও গৃহগণনা কাজে সবাইকে সক্রিয় ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের জনসংখ্যা থেকে ২০৩১ সালে কি হবে তার আভাস পাওয়া যাবে। ২০৩১ সাল আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বছর। আমরা এখন নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে আছি। আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০৩১ সালে আমরা উচ্চ মধ্যম আয়ের দেশ হবো। আর ২০৪১ সালে উন্নত দেশ হবো। সেজন্য দেশের মোট জনসংখ্যা কত তা জানা দরকার। কোন বয়সের কত জনসংখ্যা আছে তা জানা দরকার। বৃদ্ধদের সংখ্যা জানা দরকার। কাজেই জনশুমারি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। একাজে সবাইকে ভূমিকা রাখতে হবে।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –