• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৮ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ওয়াদা করুন, নৌকায় ভোট দেবেন: প্রধানমন্ত্রী কুড়িগ্রামে জুয়া খেলার সরঞ্জামসহ সাত জুয়াড়ি গ্রেফতার এসএসসি-সমমানের পরীক্ষা শুরু ৩০ এপ্রিল হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করবে সরকার নীলফামারী জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মমতাজুল, সম্পাদক অক্ষয়

সাদুল্লাপুরে ব্যস্ততা বেড়েছে লেপ তোষক তৈরির কারিগরদের

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০২২  

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে লেপ-তোষক তৈরির চাহিদা বাড়ায় ব্যস্ত সময় পার করছে এ শিল্পের সাথে জড়িত সকল কারিগররা। প্রকৃতি পাল্টে যাওয়ায় অসময়ে তীব্র শীত অনুভব হওয়ায় শীত মোকাবেলায় গরম কাপড় ও লেপ তোষক তৈরির হিড়িক পড়েছে। দিন রাত পরিশ্রম করে ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী ডেলিভারি দেওয়া চেষ্টা করছে কারিগররা। ক্রেতারা সাধ্যের মধ্যে তৈরি করে নিচ্ছে তোষক-লেপ। আধুনিক কম্বল কেনার সামর্থ্য যাদের নেই তারা কম খরচে লেপ তৈরি করে নিচ্ছে।

ঋতু বৈচিত্র্যের ধারাবাহিকতায় ইতিমধ্যে শীত জানান দিয়েছে তার আগমনী বার্তা। প্রতিবছর ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত তীব্র শীত অনুভব হলেও নভেম্বরের মাঝামাঝি থেকেই উত্তরের হিমেল হাওয়া বইতে শুরু করায় সকাল কিংবা সন্ধ্যায় গরম কাপড় ছাড়া বের হতে পাচ্ছে না সাধারণ মানুষ। ঘন কুয়াশায় ঢেকে যাচ্ছে চারপাশ। বেশী সকাল, বিকাল, রাতে বেড় হচ্ছে না মানুষ।খুব সকাল, রাত নয়টার পর বন্ধ থাকছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান যানবাহন। মৌসুমি ব্যবসা হিসাবে শীতের শুরুতেই চাহিদা বাড়ায় তারা খুশি।

কথা বলছিলাম একাধিক কারিগরদের সাথে, আমাদের ব্যবসা দুই তিন মাসের তাই সাড়া বছরের কাজ এ সময়েই হয়ে থাকে। যে হারে জিনিস পত্রের দাম বাড়েছে সে তুলনায় বাড়েনি তাদের পারিশ্রমিক। আমরা ছিন্নমূল মানুষের বেশী কাজ করি তাই পারিশ্রমিক বেশী নিতে পারি না। সকল জিনিস ক্রেতারাই কিনে দিলে পারিশ্রমিক হিসাবে সেলাই বাবদ ২৫০ টাকা নিয়ে থাকি। সাড়া দিনে যে কামাই হয় তা দিয়ে কোন রকমে চলে সংসার।

ক্রেতারা জানায়, গত বছরের তুলনায় লেপের কাভার, কাপড়, তুলা ফোমের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।কারিগরদের মজুরিও বৃদ্ধি পেয়েছে। সবদিক বিবেচনা করলে চাপে পড়েছে সাধারণ জনগণ। তবুও শীত মোকাবেলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তীব্র শীত পড়লে দাম আরো বাড়তে পারে। গত বছরের তুলনায় বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় এ বছর শীতের তীব্রতা বাড়বে বলে আশঙ্কা করছে সাধারণ জনগণ।  ইতিমধ্যে তাপমাত্রা কমে ১২ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড চলে এসেছে।

সাদুল্লাপুরের ধাপেরহাট ইউনিয়নের হাসানপাড়া গ্রামের লেপ তোষকের কারিগর ধাপেরহাট ভূমি অফিসের সামনে মৃঃ মফিজারের পুত্র মোয়াজ্জেম, মমিন ও তালেব উদ্দিন সরকারের পুত্র শহিদুল ইসলাম জানায় গত বছরের তুলনা এ বছর আগাম শুরু হয়েছে লেপ তোষক তৈরির কাজ। আর আমরা প্রতিটি লেপ - তোষক  ২৫০ টাকায় সেলাই করে কম সময়ে ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী তৈরি করে দিচ্ছি। আশা করি এ বছর ব্যবসা ভালো হবে।বর্তমানে আমরা ক্রেতাদের চাহিদা মিটিয়ে রেডিমেড হিসাবে লেপ তোষক তৈরি করে রাখছি। আমরা ক্রেতাদের জন্য মানসম্মত লেপ -তোষক দিতে পূর্ব প্রস্তুতি হিসাবে মজুদ করছি।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –