ব্রেকিং:
রংপুরের নবীগঞ্জ এলাকায় বাসচাপায় অটোরিকশার চারযাত্রী নিহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
  • শুক্রবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১৫ ১৪২৮

  • || ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বিএনপির লবিস্ট নিয়োগের অর্থের হিসাব নেওয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী জাতীয় সংসদের ১৬তম এবং বছরের প্রথম অধিবেশন সমাপ্ত দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনই একমাত্র সমাধান: সিইসি নূরুল হুদা বিএনপির নেতাদের মুখে মানবাধিকারের কথা মানায় না: হুইপ স্বপন সমুদ্রগামী জাহাজ ব্যবসায় বিনিয়োগ বাড়াচ্ছেন বাংলাদেশি উদ্যোক্তারা

বিশ্বের সুন্দরী কয়েকজন বডি বিল্ডার 

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৭ ডিসেম্বর ২০২১  

বডি বিল্ডারের নাম শুনলেই চোখে ভাসে শরীরগঠনবিদদের দেহ। সাধারণত শরীরের নানা কসরত দেখিয়ে দর্শকদের আনন্দ দেন পুরুষ বডি বিল্ডাররা। তবে এখন শুধু পুরুষ বডি বিল্ডার নয়, বিশ্বে রয়েছে অনেক নারী বডি বিল্ডারও। আজ জানাবো তেমনই বিশ্বের সুন্দরী কয়েকজন বডি বিল্ডার সম্পর্কে- 


জুলিয়া ভিনস

সুন্দরী বডিবিল্ডারদের তালিকায় শুরুতেই আছেন জুলিয়া ভিনস। বেশ কয়েক বছর আগে বার্বি ডল চেহারার জন্য ভাইরাল হয়েছিলেন তিনি। জুলিয়া তার ফিগার এবং বার্বি ডলের মতো কিউট চেহারার জন্য সবার কাছে 'মাসেল বার্বি' হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। তার ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ারের সংখ্যাও কম নয়। ১৫ বছর বয়স থেকেই ভারোত্তোলন শুরু করেন তিনি। মাত্র তিন বছরের মধ্যেই সকলকে অবাক করে দেন। ফিগারে এসেছে আমূল পরিবর্তন। কিন্তু চেহারায় রয়েছে আগের মতোই কোমলতা। আর তাতেই তিনি হয়ে উঠেছেন ২৫ বছর বয়সী এই বডিবিল্ডার রাশিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। বডিবিল্ডিং সম্পর্কে বলেন, তিনি শুধু তার ফিগার মেইন্টেন করার জন্য এবং সেলফ কনফিডেন্স আনার জন্য এক্সারসাইজ শুরু করেছিলেন। তখন তার প্রফেশনাল বডিবিল্ডার হওয়ার কোনো ইচ্ছাই ছিল না। জুলিয়া প্রথম বছরে কোনো প্রফেশনাল ট্রেনিং ছাড়াই নিজের মাসেল তৈরি করেন। তবে এক বছর পরই তার শরীরের এত ভালো গ্রোথ দেখে প্রফেশনাল ট্রেনিং নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। 

ডেনি রেয়ারডন
ফিমেল বডিবিল্ডিংয়ে ডেনি রেয়ারডনের সুনাম সবচেয়ে বেশি। ৩০ বছর বয়সেই এই বডিবিল্ডার একজন আমেরিকান। এখন পর্যন্ত ডেনি ১০ থেকে ১৫টি প্রফেশনাল বডিবিল্ডিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছেন। সুন্দর ফিগারের সঙ্গে তার চেহারাও অনেক আকর্ষণীয়। তাকে দেখলে যে কেউই মুগ্ধ হবেন। 

ইউরোপা ভৌমিক 
ইউরোপা ভৌমিক প্রথম বাঙালি নারী বডিবিল্ডার, যিনি মাত্র ১৭ বছর বয়সে মিস্টার এন্ড মিসেস ইন্ডিয়া ব্রোঞ্জ মেডেল জিতেছেন। ২০১৭ সালে এশিয়া বডিবিল্ডিং এন্ড ফিজিক্স স্পোর্টস চ্যাম্পিয়নশিপে সিলভার মেডেল অর্জন করেছেন তিনি। ইউরোপার উচ্চতা মাত্র চার ফুট এগারো ইঞ্চি। উচ্চতা কম হওয়ায় প্রায়ই সহপাঠীদের বিদ্রূপের শিকার হতেন। সেজন্য মাত্র ১২ বছর বয়সে তিনি জিমে যোগ দেন এবং বডিবিল্ডিংয়ের অনুশীলন শুরু করেন। বর্তমানে ইউরোপা ভারতীয় মেয়েদের কাছে রোল মডেল এবং অনেককেই ইন্সপায়ার করেছেন। তার চেহারা যতটা সুন্দর, তিনি তার ফিগারটিও ঠিক তেমনভাবেই গড়ে তুলেছেন। 

জেসিকা সিসট্রেম 
আমেরিকার অধিবাসী জেসিকা সিসট্রেম খুব অল্প বয়স থেকেই বডিবিল্ডিং শুরু করেন। জিমের প্রতি জেসিকার এত বেশি আগ্রহী যে, জিমকে তিনি নিজের দ্বিতীয় বাড়ি মনে করেন। তার সুঠাম দেহ, সুন্দর চেহারা এবং বিশেষ করে এত বড় বাইসেপসের জন্য বডিবিল্ডিংয়ে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। এত বড় বাইসেপ দেখে যে কেউ অবাক হয়ে যায়। এছাড়াও তার সুন্দর চেহারা দেখে যে কেউ প্রশংসা করতে বাধ্য। 

জি ইউন উ
৩৪ বছর বয়সী সুন্দরী বডিবিল্ডার জি ইউন উ সাউথ কোরিয়ার অধিবাসী। এই বডিবিল্ডারের চেহারা যতটা সুন্দর, ঠিক ততটাই ভয়ংকর তার শরীর। তাকে দেখতে আর দশটা সাধারণ মেয়ের মতো কোমল ও লজ্জাবতি মনে হলেও এই বডিবিল্ডারের বডি দেখলে যে কেউ অবাক হবে। জি ইউন মাত্র ১২ বছর বয়সে বডিবিল্ডিং শুরু করেন। ২০১০ সালে তিনি যখন কোরিয়ান ন্যাশনাল বডিবিল্ডিংয়ে অংশগ্রহণ করে প্রথম হন, তখন থেকেই এটিকে নিজের পেশা হিসেবে বেছে নেন।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –