• মঙ্গলবার   ২৮ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পদ্মাসেতু জাতীয় সম্পদ, বিরোধিতাকারীরা জাতির শত্রু: হাইকোর্ট নিজের ভাগ্য নয়, জনগণের ভাগ্য বদলই একমাত্র লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল নিষিদ্ধ যুক্তরাজ্যকে এক লাখ রোহিঙ্গা নিতে অনুরোধ বাংলাদেশের বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতি পদ্মার গহীনে নিমজ্জিত: ওবায়দুল কাদের

বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেলেন কুড়িগ্রামের সাংবাদিক শাহাবুদ্দিন

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩০ মে ২০২২  

তৃণমূল ও জেলা পর্যায়ে সাংবাদিকতায় বিশেষ অবদান রাখায় কুড়িগ্রামের প্রবীণ সাংবাদিক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. শাহাবুদ্দিনকে বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়েছে। সোমবার (৩০ মে) সন্ধ্যায় বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাকে এ সম্মাননা প্রদান করেন। 

অনুষ্ঠানে দেশের ৬৪ জেলায় ৬৪জন প্রবীণ সাংবাদিক ছাড়াও আরো ১১ জন সাংবাদিককে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় অবদান রাখায় অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। পুরস্কার হিসেবে মো. শাহাবুদ্দিন ৫০ হাজার টাকা, একটি সম্মাননাপত্র ও ক্রেস্ট পেয়েছেন।

প্রসঙ্গত,বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. শাহাবুদ্দিন ১৯৫১ সালের ১৫ মার্চ তৎকালিন কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী উপজেলার চর রাজীবপুর ইউনিয়নের টাঙ্গালিয়া পাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালে ‘দৈনিক আজাদ’ পত্রিকার মাধ্যমে তার সাংবাদিকতা শুরু হয়। এরপর ১৯৭৮ সালে তিনি ‘ দৈনিক বাংলার বাণী’ পত্রিকায় কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধির দায়িত্ব পালন করেন। দীর্ঘদিন জাতীয় পত্রিকায় সাংবাদিকতা করার পর ১৯৮৮ সালে নিজ উদ্যোগে কুড়িগ্রাম থেকে ‘সাপ্তাহিক গণকথা’ পত্রিকা প্রকাশ করেন। এখানে  নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি কুড়িগ্রাম জেলায় প্রথম প্রকাশিত দৈনিক পত্রিকা ‘আজকের কুড়িগ্রাম’ পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব  পালন করেন। এরপর তিনি ১৯৯২ সাল থেকে বাংলাদেশ বেতারে জেলা সংবাদদাতা হিসেবে অদ্যাবধি কর্মরত রয়েছেন। তিনি পেশায় একজন হাইস্কুল শিক্ষক ছিলেন। ১৯৭৩ সালে শহরের খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠান রিভার ভিউ উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করে পরবর্তীতে অবসরে যান। তিনি স্কাউটের জেলা কমিটির সম্পাদক ও মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে মুক্তিবাহিনীতে যোগ দিয়ে সরাসরি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। তিনি ১১নং সেক্টরে সুবেদার আফতাব হোসেনের নেতৃত্বে চিলমারীতে পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সম্মুখ  যুুদ্ধে অংশ নেন। এসময় মুক্তাঞ্চল রৌমারী থেকে প্রকাশিত ‘অগ্রদূত’ পত্রিকায়ও তিনি কাজ করেন।
 
বসুুন্ধরা অ্যাওয়ার্ড পেয়ে মো. শাহাবুদ্দিন বলেন, তৃণমুল পর্যায়ে সাংবাদিকতা করা অনেক কষ্টের। সাংবাদিকতার নীতি আদর্শ ও ভাবমূর্তি ধরে রেখে দীঘদিন স্বাধীনভাবে সাংবাদিকতার চর্চা করেছি। জেলায় একাধিক সংবাদপত্র প্রকাশনার মাধ্যমে এলাকার সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেছি। আমাকে বসুন্ধরা গ্রুপ থেকে এ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করায় গ্রুপের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –