• সোমবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৯

  • || ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নে সকলকে কাজ করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী নভেম্বরে ১৩৪ কোটি টাকার চোরাচালান পণ্য উদ্ধার বিজিবির নিরাপদ সামুদ্রিক শিল্প উদ্যোগে আইএমও-এর সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ তৈরি পোশাকের ওপর ভর করে নতুন রেকর্ড গড়েছে বাংলাদেশ রংপুরে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত

চরাঞ্চলে শিক্ষকদের জন্য উপজেলা প্রশাসনের শিক্ষাতরী

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০২২  

চরাঞ্চলে শিক্ষকদের জন্য উপজেলা প্রশাসনের শিক্ষাতরী                  
কুড়িগ্রামের চরের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে সময়মতো শিক্ষকদের উপস্থিত হতে না পারার অভিযোগ দীর্ঘ দিনের। যাতায়াতের অসুবিধার কারণে অনেক সময় শিক্ষকরা স্কুলে অনুপস্থিত থাকেন এমন অভিযোগও রয়েছে। এজন্য চরাঞ্চলের শিক্ষার্থীদের মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করা নিয়েও বারবার প্রশ্ন উঠে। নৌকা সংকটে নৌ-পথে শিক্ষকদের যাতায়াত বিড়ম্বনার কারণে সময়মতো স্কুলে পৌঁছা সম্ভব হয় না, এমন দাবি শিক্ষকদের। 

শিক্ষার্থীদের পাঠদান নিশ্চিতকরণ এবং শিক্ষকদের সময়মতো স্কুলে যাতায়াত নিশ্চিত করতে ‘শিক্ষাতরী প্রকল্প’ নামে একটি অনন্য উদ্যোগ নিয়েছে চিলমারী উপজেলা প্রশাসন। গতকাল রোববার  (১৬ অক্টোবর) সকালে উপজেলার অষ্টমীরচর ইউনিয়নের দ্বিপ চরের স্কুল শিক্ষকদের যাতায়াতের জন্য একটি নৌকা প্রদানের মাধ্যমে প্রকল্পের উদ্বোধন করেন চিলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহবুবুর রহমান। 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, চিলমারী উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোছা. আসমা বেগম, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শহীদুল ইসলাম, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবু সালেহ সরকার প্রমুখ।

উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, চিলমারীর বেশিরভাগ এলাকা চরাঞ্চল। এসব চরে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে নৌ-পথে শিক্ষকদের যাতায়াত করতে হয়। নৌকা সংকটে প্রায়ই যাতায়াত বিড়ম্বনায় পড়েন শিক্ষকরা। অনেক সময় নৌকার অভাবে স্কুলে যেতে ব্যর্থও হন শিক্ষকরা। এতে শিক্ষার্থীরা মানসম্পন্ন শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হয়। শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সার্বিক সুবিধা বিবেচনায় উপজেলা প্রশাসন শিক্ষকদের যাতায়াতের সুবিধার্থে চিলমারীর চরে প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে চারটি রুটে ভাগ করে চারটি নৌকা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়। ‘শিক্ষাতরী প্রকল্প’ নামে এই উদ্যোগের প্রথম ধাপে রোববার সকালে উপজেলার অষ্টমীরচর ইউনিয়নের ৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১১ জন শিক্ষকের জন্য একটি নৌকা প্রদান করে উপজেলা প্রশাসন। সংশ্লিষ্ট এলাকার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও এতে যাতায়াত করতে পারবেন। নৌকার জ্বালানি খরচ ও মাঝির পারিশ্রমিক সংশ্লিষ্ট শিক্ষকরা বহন করবেন।

উপজেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগে আনন্দিত শিক্ষকরা। নৌকা পেয়ে তারা স্বস্তি প্রকাশ করেন এবং উপজেলা প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। 

অষ্টমীরচর ইউনিয়নের ডাটিয়ারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমরা উৎফুল্ল এবং আনন্দিত। আমাদের দীর্ঘ দিনের ভোগান্তির অবসান হলো। অন্য নৌকায় যাতায়াতে এক ধরনের জিম্মিদশা থেকে আমাদের আজ মুক্তি মিলেছে। এখন আমরা সময়মতো স্কুলে যাতায়াত করতে পারব। এতে শিক্ষার্থীদের নিয়মিত পাঠদান নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। এই অনন্য উদ্যোগের জন্য সকল শিক্ষকের পক্ষ থেকে আমি উপজেলা প্রশাসনকে কৃতজ্ঞতা জানাই।’

ইউএনও মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘উপজেলার চরাঞ্চলের শিক্ষার্থীদের মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করতে হলে শিক্ষকদের নিয়মিত এবং সময়মত স্কুলে উপস্থিত নিশ্চিত করতে হবে। এ ভাবনা থেকে শিক্ষকদের যাতায়াতের বিড়ম্বনা দূর করতে উপজেলা প্রশাসন এ উদ্যোগ নিয়েছে। এ ধরনের উদ্যোগ এবারই প্রথম। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী এই প্রকল্পে সার্বিক সহযোগিতা করছেন। আজ একটি নৌকা দেওয়া হয়েছে। অন্য রুটের নৌকাগুলো দ্রুত দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। আমরা চাই শিক্ষার্থীরা মানসম্পন্ন শিক্ষায় শিক্ষিত হোক।’ 

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –