• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৭ ১৪২৯

  • || ০৮ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ওয়াদা করুন, নৌকায় ভোট দেবেন: প্রধানমন্ত্রী কুড়িগ্রামে জুয়া খেলার সরঞ্জামসহ সাত জুয়াড়ি গ্রেফতার এসএসসি-সমমানের পরীক্ষা শুরু ৩০ এপ্রিল হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরীক্ষার ফি নির্ধারণ করবে সরকার নীলফামারী জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মমতাজুল, সম্পাদক অক্ষয়

২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভাতিজাকে হত্যার দায়ে চাচাসহ দুইজন গ্রেফতার

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২৩  

২৪ ঘণ্টার মধ্যে ভাতিজাকে হত্যার দায়ে চাচাসহ দুইজন গ্রেফতার                
কুড়িগ্রামের উলিপুরে চাঞ্চল্যকর অটোরিকশা চালক হত্যার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে রহস্য উদঘাটনসহ আলামত উদ্ধার করে হত্যার সঙ্গে জড়িত চাচাসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার বিকেলে এক প্রেস রিলিজের মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছে কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ। 

জানা যায়, গত ১৯ জানুয়ারি দুপুরে গুনাইগাছ আমিন মোড়ে ‘আশা এনজিও’ থেকে লোনের ৫০ হাজার টাকা তোলার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে যায় উপজেলার ধরনীবাড়ি তেলীপাড়া এলাকার অটোচালক রফিকুল ইসলাম। বিকেলে লোনের টাকা তোলে তার স্ত্রীকে ফোন দিয়ে উলিপুর বাজারে ডেকে নেন। স্ত্রী অভিযুক্ত রফিকুলের স্টিলের বাক্স কিনতে চাইলে স্বামী নিষেধ করেন। স্ত্রীকে সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়ে রফিকুল ইসলাম প্রতিবেশী অভিযুক্ত মো. রফিকুল ইসলামের সঙ্গে চলে যান। এ সময় ভিকটিম রফিকুল ইসলামের কাছে লোনের ৫০ হাজার টাকাসহ অটো বিক্রির টাকা ছিল। ভিকটিম রফিকুল ইসলাম বাড়িতে ফিরে না আসায় তাকে তার পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। একপর্যায়ে গত ২০ জানুয়ারি ভোরে ধরণীবাড়ী ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ধরণীবাড়ী তেলীপাড়া গ্রামের এক ব্যক্তির পুকুরের পাড়ে কাঁচা রাস্তার ওপর ভিকটিম রফিকুল ইসলামকে গলা কাটা অবস্থায় লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয়। এ ঘটনায় উলিপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. শাহ আলম জানান, আসামি রফিকুল ভিকটিম রফিকুলের চাচা। গ্রেফতারকৃত আসামি ফেরদৌস আলম বিজ্ঞ আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় হত্যার পরিকল্পনা, কিভাবে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে তার বিশদ বর্ণনা দিয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

উলিপুর থানার ওসি শেখ আশরাফুজ্জামান জানান, গোপন তথ্য সংগ্রহ করে তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ধরনীবাড়ি তেলিপাড়া গ্রামের মো. রফিকুল ইসলাম ও একই গ্রামের মো. ফেরদৌস আলমকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী রফিকুলকে হত্যার কাজে ব্যবহৃত একটি চাকু, একটি মোবাইল ও ৭ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম জানান, বিভিন্ন তথ্যের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে আরো যারা জড়িত, তাদেরকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

পুলিশ সুপার আল আসাদ মো. মাহফুজুল ইসলাম জানান, হত্যাকাণ্ডের আলামতসহ জড়িত দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –