• শুক্রবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৫ ১৪২৯

  • || ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ধর্ম নিরপেক্ষতা সমুন্নত রাখতে শেখ হাসিনাই `একমাত্র ভরসা’- ইন্ডিয়া টুডে আপাতত অফিস সময়ে কোনো পরিবর্তন আনা হচ্ছে না সুশাসন প্রতিষ্ঠায় প্রয়োজন শুদ্ধাচারের প্রয়োগ: মন্ত্রিপরিষদ সচিব শিশুরাই উন্নত বাংলাদেশ গড়ার মূল কারিগর: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন দলগতভাবে বিএনপিকে প্রতিহত করা হবে: জাহাঙ্গীর কবির নানক

তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতির প্রমাণ পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২  

তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতির প্রমাণ পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র           
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়ার বিরুদ্ধে ব্যাপক মাত্রায় দুর্নীতির প্রমাণ পেয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এতে দেশটির স্বার্থ ক্ষুণ্ন হয়েছে উল্লেখ করে ২০০৮ সালের ৩ নভেম্বর তারেক জিয়ার ওপর যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়, যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। 

বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টিকারী ওয়েবসাইট উইকিলিকস এ তথ্য প্রকাশ করেছিল। এতে রাজনৈতিকভাবে সংঘটিত ব্যাপক মাত্রায় দুর্নীতির জন্য তারেক রহমানকে দায়ী করা হয়। 

সে সময় মার্কিন দূতাবাস জানায়, তারেকের দুর্নীতির কারণে মার্কিন ঘোষণাপত্রে বর্ণিত গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানের স্থিতিশীলতা এবং যুক্তরাষ্ট্রের বৈদেশিক সহায়তার লক্ষ্য বিনষ্ট হওয়ার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় স্বার্থ ক্ষুণ্ন হয়েছে।

মূলত কয়েকটি কারণে তারেক জিয়া যুক্তরাষ্ট্রে অবাঞ্ছিত। এগুলোর মধ্যে মোটা দাগে রয়েছে দুর্নীতি, চাঁদাবাজি ও জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে সম্পৃক্ততা।

মার্কিন দূতাবাস বলেছে, তারেকের দুর্নীতি শুধু স্থানীয় কোম্পানিগুলোতে  চাঁদাবাজির মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল না। দুদকের অনুসন্ধানে তার বিরুদ্ধে অনেক  দেশি-বিদেশি ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ঘুষ নেয়ার ঘটনায় জড়িত থাকার তথ্যও বেরিয়ে এসেছে। এগুলোর  মধ্যে সিমেন্স, হার্বিন কোম্পানি, মোনেম কনস্ট্রাকশনসহ আরো অনেক কোম্পানির নাম রয়েছে।

চাঁদাবাজিতে শুধু দেশে নয়, বিদেশেও ব্যাপক কুখ্যাতি রয়েছে তারেক জিয়ার। মার্কিন দূতাবাসের বার্তায় বলা হয়, একটি মামলায় আল আমিন কনস্ট্রাকশনের মালিক আমিন আহমেদকে হুমকি দিয়েছেন তারেক রহমান। দেড় লাখ ডলার না দিলে তার প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়ারও হুমকি দেন তিনি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ পশ্চিমা একাধিক দেশ তারেক জিয়ার সঙ্গে বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের অনেকগুলো সূত্র পেয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের তদন্ত অনুযায়ী, তারেক জিয়া বাংলাদেশি এবং আন্তর্জাতিক অন্তত ৩টি জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে সম্পৃক্ত। বিশেষ করে হরকাতুল জিহাদ, হিযবুত তাহরীর এবং জেএমবির মতো ৩টি সংগঠনের সঙ্গে তারেক জিয়ার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ যোগাযোগ রয়েছে বলে বিভিন্ন মার্কিন সূত্র দাবি করছে।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –