• রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

করলা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী কেন?

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৯ আগস্ট ২০২৩  

 
ডায়াবেটিস এক ধরনের মেটাবলিক ডিজঅর্ডার। এক্ষেত্রে শরীর পর্যাপ্ত ইনসুলিন উৎপাদন ও তা ব্যবহার করতে পারে না। অনেকের ক্ষেত্রে ইনসুলিন একেবারেই নষ্ট হয়ে যায়।

চিকিৎসকরা বলছেন, যাদের পরিবার বা বাবা-মায়ের ডায়াবেটিস হওয়ার ইতিহাস রয়েছে, তাদের এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার আগেই জীবনযাপনের ধরন পাল্টানো উচিত। কারণ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আনা বেশ মুশকিল। এজন্য সঠিক খাদ্যাভ্যাস ও শরীরচর্চা জরুরি।

জানলে অবাক হবেন, এমন কিছু সবজি আছে যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে দারুণ উপকারী। তেমনই এক সবজি হলো করলা।

স্বাদে তেতো হলেও, এতে থাকে অনেক পুষ্টিগুণ। ক্যালশিয়াম, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন, জিংকসহ বিভিন্ন প্রকার ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে ভরপুর এই সবজি।

বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতিদিন করলা খেলে একাধিক রোগ থেকেও মেলে রক্ষা। ঠিক একইভাবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ম্যাজিকের মতো কাজ করে করলা।

এতে এমন উপাদান আছে, যা ইনসুলিনের পরিমাণ বাড়াতে সাহায্য করে। তাই প্রতিদিন করলা খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে।

গবেষণা অনুসারে, করলায় অ্যান্টি-ডায়াবেটিক বৈশিষ্ট্যসহ কয়েকটি সক্রিয় পদার্থ আছে। তাদের মধ্যে একটি হলো চারেন্টিন। এটি রক্তে গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণে রাখে।

করলায় আরো আছে পলিপেপটাইড-পি বা পি-ইনসুলিন নামক একটি যৌগ। যা প্রাকৃতিকভাবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

তবে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কীভাবে খাবেন করলা? বিভিন্নভাবে খেতে পারেন এই সবজি। করলার তরকারি কিংবা ভাজি অনেকেরই প্রিয়। আর যদি একেবারেই করলা খেতে না পারেন, তাহলে তা শুকিয়ে নিন।

তারপর কেটে মিহি করে গুঁড়া তৈরি করুন। সকালে খালি পেটে পানিতে এই গুঁড়া মিশিয়ে পান করুন। মনে রাখবেন রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে করলার রস খাওয়া বেশি উপকারী।

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে আধা কাপ করলার রস ডায়াবেটিস নিযন্ত্রণসহ শারীরিক বিভিন্ন সমস্যা সমাধান করবে। আবার শরীরও থাকবে সুস্থ।

এ বিষয়ে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুর পুষ্টিবিদ ডা. অঞ্জু সুদ জানান, করলার রস ইনসুলিনকে সক্রিয় করে তোলে। ফলে রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়বে না ও চর্বিতেও রূপান্তরিত হবে না। এতে ওজনও বশে থাকবে।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –