• শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • চৈত্র ৩০ ১৪৩০

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

ঠান্ডায় গোসল করতে না পারলে করণীয় 

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২৪  

দেশজুড়ে চলছে শৈত্যপ্রবাহ। এমন ঠান্ডা আবহাওয়ায় অনেকেই গোসল করার কথা ভাবতেই শিহরিত হন। এ কারণে অনেকেই ২ দিন কিংবা ৩ দিন অন্তর গোসল করেন, আবার কেউ কেউ শুধু শরীর মুছে ফেলেন।

যদিও প্রতিদিন গোসলের অনেক উপকার আছেন, তবে শীতকালে গোসল না করলে কি খুব ক্ষতি হয়? এ বিষয়ে ভারতের ফর্টিস হাসপাতালের ইন্টারনাল মেডিসিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জয়দীপ ঘোষ জানান, শীতকালে গোসল না করারও কয়েকটি উপকার আছে।

বিশেষজ্ঞের মতে, গোসল না করলেও আমাদের ত্বক নিজস্ব নিয়মে নিজেকে পরিষ্কার রাখে। এই প্রক্রিয়ায় কোনো বাধা আসে না। তাই গোসল না করলেও খুব বেশি ক্ষতি হয়ে যায় না।

ত্বকের ওপর শুধুই ময়লা থাকে তা নয়। বরং বেশ কিছু ভালআ ব্যাকটেরিয়াও থাকে। গোসল করলে ময়লা-জীবাণুর পাশাপাশি ত্বকে থাকা ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলোও ধুয়ে যায়। এতে ত্বকের অনেকটা ক্ষতিই হয়।

শীতে বেশিরভাগ মানুষই গরম পানিতে গোসল করেন, এতে করে ত্বকে যতটুকু তেল উৎপন্ন হয়, তা ধুয়ে যায়। আবার ঠান্ডা পানি ব্যবহার করলেও বিপ ঘটে। এতে ঠান্ডা লেগে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে। তবে যারা একান্তই গোসল করতে পারবেন না তাদের উচিত কয়েকটি কাজ অবশ্যই করা। এ বিষয়ে চিকিৎসক জানিয়েছেন কয়েকটি উপায়ের কথা। যেমন-

জামাকাপড় বদলানো: নিয়মিত জামাকাপড় বদলাতে হবে। গোসল না করলেও কাপড় বদলে ফেলতে হবে। এতে কমবে চর্মরোগের ঝুঁকি।

ভেজা কাপড় বা তোয়ালে দিয়ে গা মুছুন: নিজেকে পরিষ্কার রাখাই আসল উদ্দেশ্য। তাই নিয়মিত গা স্পঞ্জ করে নেওয়া যেতে পারে। এতে আলাদা করে গোসল করতে হয় না।

ধুলাবালি থেকে এলে গোসল জরুরি: সারাদিন যদি আপনি ঘরেই থাকেন, তাহলে গোসল না করলেও হয়, তবে বাইরে বের হলে বা ধুলাবালি থেকে ফিরে যত দ্রুত পারবেন গোসল সেরে নিন।

হালকা গরম পানির ব্যবহার: গোসলের সময় অতিরিক্ত গরম পানির বদলে ঠান্ডা-গরম পানি মিশিয়ে ব্যবহার করুন। খুব গরম পানি হলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। বাইরের তাপমাত্রা কম হলে আর গোসল করতে ভয় পেলে সপ্তাহে অন্তত দু’দিন গোসল করা জরুরি। তবে একটানা ১০-১৫ দিন গোসল না করে থাকার অভ্যাস মোটেও ভালো নয় বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসক।

সূত্র: এবিপি লাইভ

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –