ব্রেকিং:
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় বুয়েটের বহিষ্কৃত ২০  শিক্ষার্থীর মৃত্যুদণ্ড ৫ জনের যাবজ্জীবনের আদেশ দিয়েছেন আদালত
  • বৃহস্পতিবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৮

  • || ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পঞ্চগড়ে একসাথে তিন সন্তানের জন্ম দিলেন দরিদ্র মা ঢাকা-দিল্লি সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিতে জোর দুই পররাষ্ট্র সচিবের জলঢাকায় ছোট বোনকে বাঁচাতে গিয়ে বড় বোনের মৃত্যু কোভিড চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা দরকার: প্রধানমন্ত্রী বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যায় ২০ মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন ৫

থানার জানালা ভেঙে পালাল আসামি, দুই পুলিশ ক্লোজড

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০২১  

দিনাজপুরের পার্বতীপুর মডেল থানা হাজতের জানালার গ্রিল ভেঙে পালিয়ে গেছে মাদক মামলার এক ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি। এই ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে থানার দায়িত্বরত এক এএসআই ও একজন কনস্টেবলকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। দিনাজপুর পুলিশের ফুলবাড়ী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত দুইজনকে ক্লোজড করা হয়েছে, আরো প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাদেরকে ক্লোজড করা হয়।

এর আগে আজ সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে জানালার গ্রিল ভেঙ্গে পালিয়ে যায় আসামি। এই ঘটনার পর দিনাজপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মমিনুল করিম ও ফুলবাড়ী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। দায়িত্বে অবহেলার কারণে ক্লোজড হওয়া পুলিশ সদস্যরা হলেন ডিউটি অফিসার এএসআই কেবিএম শাহারিয়ার ও পুলিশ কনেস্টবল সাবিনা ইয়াছমিন। তাদেরকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১২ টার দিকে অভিযান চালায় পার্বতীপুর উপজেলার বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সদস্যরা। এ সময় উপজেলার হাবড়া ইউনিয়নের ভবানীপুর এলাকা থেকে মোকারুল ইসলাম (৩২) নামে একজন ওয়ারেন্টভুক্ত আসামিকে গ্রেপ্তার করে। পরে রাতেই মাদক মামলার আসামি মোকারুল ইসলামকে পার্বতীপুর মডেল থানায় হস্তান্তর করে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সদস্যরা। 

দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানোর কথা থাকলেও তার আগেই সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে হাজতখানার জানালার তিনটি গ্রিল ভেঙ্গে ফেলে পালিয়ে যায় সে। পরে বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, হাজতে থাকার সময়ে আসামী সকলের অগোচরে পাশের দরজার তালা ভেঙে স্টোররুমে প্রবেশ করে। সেখানে সে রুমের জানালার গ্রিল ভেঙে পালিয়ে যায়। ঘটনা জানাজানির হওয়ার পর থেকেই আসামিকে গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

– কুড়িগ্রাম বার্তা নিউজ ডেস্ক –